বিশ্বজুড়ে ইসলাম/সৌদি আরব

উইকিবই থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন

ভুমিকা[সম্পাদনা]

ইসলাম সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় ধর্ম। ইসলাম ও সৌদি আরবের মধ্যে সম্পর্ককটা হলো ওয়াহাবিজম এর প্রসার। মক্কা-মদিনা ও অন্যান্য ইসলামি স্থানের জন্য সৌদি আরব বিশ্বের মুসলমানের কাছে অনেক গুরুত্ব রাখে।১৫ থেকে ২০ মিলিয়ন সৌদি নাগরিকদের বেশিরভাগ হলেন সুন্নি মুসলিম, পূর্ব অঞ্চলগুলি বেশিরভাগই বারো ইমামী শিয়া দ্বারা জনবহুল এবং দক্ষিণ অঞ্চলে জায়েদি শিয়া রয়েছে। অমুসলিমদের দ্বারা অমুসলিম ধর্মীয় উপকরণ (যেমন বাইবেল ) বিতরণ সৌদি আরবে অমুসলিমদের দ্বারা ধর্ম প্রচার করা অবৈধ।

ইসলামি বিধান[সম্পাদনা]

  • পুরুষদের মসজিদে নামাজ পড়ার নির্দেশ দেওয়া হয় এবং নামাজের সময় দোকান বন্ধ রাখার নির্দেশ দেওয়া হয়।
  • শরিয়া আইন প্রয়োগ করা হয়।
  • শরিয়া কার্যকর করতে সহায়তা করার জন্য "দ্যা জেনারেল প্রেসিডেন্সি অফ দ্য প্রমোশন অফ ভারচ্যুট অ্যান্ড দ্য প্রিভেনশন অফ ওয়াইস" নামে একটি সরকারী কর্তৃপক্ষ রয়েছে।
  • ইসলাম ও ইসলামী কার্যকলাপ সম্পর্কে অবহিত করার জন্য নির্ধারিত অফিস রয়েছে, যা বিদেশী কর্মীদের সাথেও কাজ করে।
  • অ্যালকোহল বা মদ সেবন নিষিদ্ধ।
  • বার এবং নাইট ক্লাব নিষিদ্ধ।
  • নারীদেরকে ইসলামের পোশাক পরার নির্দেশ দেওয়া হয়।
  • মানুষ বিনা খরচে এবং আইনজীবী ছাড়াই তাদের মামলা আদালতে নিয়ে যেতে পারে।
  • ব্যভিচার একটি অপরাধ
  • হত্যার জন্য মৃত্যুদণ্ড।
  • নাটক, সিনেমা, গণমাধ্যমে কঠোরতা দেখা হয়।[১]

ইসলামি সম্প্রদায়[সম্পাদনা]

  • সালাফি/ওয়াহাবিরা সৌদি আরবের সংখ্যাগরিষ্ঠ । এরা নিজেকে সুন্নি বলে দাবি করে।[২]
  • শিয়া মতাবাদও আছে।
  • সালাফিবাদ "ও " ওয়াহাবিবাদ " ইসলামের এই ব্যাখ্যাটি রাষ্ট্রীয় ধর্ম হিসাবে পরিচিত।

নারী স্বাধীনতা[সম্পাদনা]

  • কয়েক বছর ধরে নারীরা মোটর ড্রাইভ করার ব্যাপারে আন্দোলন করছে।
  • তারা খেলাধুলায় প্রতিযোগিতা করছে।
  • আধুনিক নারি সমাজ তৈরিতে কিছু সম্প্রদায় কাজ করছে।
  • অনেক নারি বিদেশে পালিযে যায়।[৩]

উপসংহার[সম্পাদনা]

পরিশেষে বলা যায়, সৌদি আরব বিশ্বের মুসলমানদের প্রধান পবিত্র স্থান। এর সাথে জড়িত আছে ইসলামের নবি মুহাম্মাদের জীবনচরিত্র।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. https://www.bbc.com/bengali/news-62821366
  2. https://www.channelionline.com/ইসলামের-সঙ্গে-সৌদি-রাজবং/
  3. https://www.jugantor.com/international/139513/যে-কারণে-পালিয়ে-ইউরোপে-পাড়ি-জমাচ্ছেন-সৌদি-নারীরা