বিষয়বস্তুতে চলুন

বিশ্বজুড়ে ইসলাম/আল ওয়ালিদ বিন তালাল

উইকিবই থেকে

সূচী পত্র[সম্পাদনা]

  1. ভূমিকা
  2. পরিচয়
  3. ব্যবসা
  4. মানবিক কাজ
  5. বন্দি ও মুক্তি
  6. উপসংহার
  7. তথ্যসূত্র

ভূমিকা[সম্পাদনা]

আল ওয়ালিদ বিন তালাল হলেন রোটানা গ্রুপের মালিক । এটি একটি দল যারা আরবি গায়ক ও নর্তকদের সমর্থন করে। তাদের সঙ্গীত চ্যানেলের একটি গ্রুপ আছে।[১] তারা সৌদি আরব এ সিনেমার অনুমতি দেওয়ার চেষ্টা করছে।[২]

পরিচয়[সম্পাদনা]

আল ওয়ালিদ বিন তালাল জন্মগ্রহণ করেন সৌদি আরবের জেদ্দায় ১৯৫৫ সালের ৭ মার্চ। তিনি একাধারে সৌদি আরব ও লেবাননের নাগরিক। ঐতিহাসিক ব্যক্তিত্ব, কিছু ক্ষেত্রে লিজেন্ড কিংবা তার চেয়েও বেশি। সৌদি শাসক আবদুল আজিজ আল সৌদ ছিলেন তার দাদা। বর্তমান সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ-এর ছোট ভাই তালাল বিন আলে সৌদের ছেলে।

ব্যবসা[সম্পাদনা]

তিনি সৌদি আরবের সিটি গ্রুপ ইন করপোরেশনের সবচেয়ে বড় একক বিনিয়োগকারী। শাহজাদা ওয়ালিদ বিন তালাল সৌদির আরবের শীর্ষ কোম্পানি ‘কিংডম হোল্ডিং’ এর সত্ত্বাধিকারী। সিটি গ্রুগ ও টুইটার সামিটের অংশিদার। তিনি আন্তর্জাতিক টিভি নেটওয়ার্কের মালিক। ওয়ালিদ বিন তালাল কিছু দিন পূর্বে আমেরিকার প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মালিকানাধীন প্লাজা হোটেল কিনে নেন। তিনি আন্তর্জাতিকভাবে কিংডোম হোল্ডিং কোম্পানির শেয়ারহোল্ডার ও মালিক হিসেবেই বেশি সমাদৃত এবং সুপরিচিত। কিংডোম হোল্ডিং পুরো বিশ্বে প্রভাবশালী একটি বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠান। মধ্যপ্রাচ্যে তিনি সুপরিচিত এন্টারটেইনমেন্ট কোম্পানি রোটানার মালিক। বিশ্ববিখ্যাত টাইম ম্যাগাজিন তার ব্যবসায়িক সফলতায় মুগ্ধ হয়ে তাকে ‘অ্যারাবিয়ান ওয়ারিয়ান বাফেট’ উপাধিতে ভূষিত করেছে। তার মোট সম্পদের পরিমাণ ২৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। ১৯৮৮ সালে তিনি সর্বপ্রথম ফোর্বস ম্যাগাজিনের নজরে আসেন। বর্তমান ফোর্ব ম্যাগাজিনের তালিকায় ১০ প্রভাবশালী ব্যক্তির অন্যতম হিসেবে উল্লেখ করা হয় তাকে।

মানবিক কাজ[সম্পাদনা]

তিনি ব্যবসা ছাড়াও বিশ্বব্যাপী মানবহিতৌষী হিসেবে সুপরিচিত। তিনি আল ওয়ালিদ বিন তালাল ফাউন্ডেশন নামক দাতব্য প্রতিষ্ঠানের পৃষ্ঠপোষক। ওয়ালিদ বিন তালাল পৃথিবীর ৭তম সেরা দাতা হিসেবেও পরিচিত।

বন্দি ও মুক্তি[সম্পাদনা]

সৌদি আরবে রাজপরিবারের সদস্য যারা, দেশটির মন্ত্রী ও শীর্ষ ব্যবসায়ীদের গ্রেপ্তার করা হয়। তাঁদের মধ্যে প্রিন্স তালালও ছিলেন। পরে তিনি মুক্তি পান।[৩][৪]

উপসংহার[সম্পাদনা]

পরিশেষে বলা যায় কট্টপন্থী সৌদি সরকারের নীতিকে সামাজিক আন্দোলনের মাধ্যমে আধুনিকতায় নিয়ে আসেন যারা তাদের মধ্যে তালাল একজন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]