নাক্ষত্রিক জ্যোতির্বিজ্ঞান/শোনবার্গ-চন্দ্রশেখর সীমা

উইকিবই থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন

শোনবার্গ-চন্দ্রশেখর সীমা নির্ধারণ করে, মূলধারা থেকে বিদায় গ্রহণের পর তারার হিলিয়াম কোরটির ভর ঠিক কত হলে তা সংকুচিত হতে শুরু করবে। এটি একটি উর্ধ্বসীমা, অর্থাৎ তারার হিলিয়াম কোরের ভর যদি এই সীমার চেয়ে বেশি হয় তা হলে নিজের মহাকর্ষীয় বিভবের কারণে সংকুচিত হতে শুরু করবে। গাণিতিক সংজ্ঞা হচ্ছে, তারার আনুপাতিক ভর (হিলিয়াম কোরের ভর : তারার মোট ভর) যদি ০.১ এর চেয়ে বেশি হয় তাহলেই সংকোচন ঘটবে। এভাবে লেখা যায়:

শোনবার্গ-চন্দ্রশেখর সীমা = ০.১

বা গণিতের ভাষায়,

তারার হিলিয়াম কোর সংকুচিত হতে শুরু করবে যদি, হয়

তবে এই সীমা সব ভরের তারার জন্য সমান নয়।

  • অতি নিম্ন ভরের তারা শোনবার্গ-চন্দ্রশেখর সীমায় পৌঁছানোর পূর্বেই মূলধারা ত্যাগ করে। কারণ এদের একমাত্র নিউক্লীয় বিক্রিয়া প্রোটন-প্রোটন শিকল, তাপমাত্রার উপর যার নির্ভরতা খুব কম। ফলে হাইড্রোজেন বেশি পুড়ে না এবং হিলিয়াম কোরের ভরও বেশি বাড়ে না।
  • কিন্তু উচ্চ বা মধ্যবর্তী ভরের তারায় সিএনও চক্র চলে। দহন হার বেশি হওয়ায় হিলিয়াম কোরের ভর এই সীমাকেও ছাড়িয়ে যায়। এজন্যই হাইড্রোজেন শেষ হয়ে যাওয়ার পর এসব তারার হিলিয়াম খুব কোর খুব দ্রুত সংকুচিত হয় এবং তারা খুব দ্রুত লোহিত দানব শাখার দিকে এগিয়ে যায়।