উইকিশৈশব:বাদ্যযন্ত্র/একতারা

উইকিবই থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন
এক তারা

একতারা হচ্ছে একজাতীয় লোকবাদ্যযন্ত্র। এক তারবিশিষ্ট বলে এটি একতারা নামে অভিহিত হয়। একসময় এর নাম 'একতন্ত্রী বীণা' বলে ইতিহাসে পাওয়া যায়।[১] বাংলার দেশীয় সংস্কৃতির স্বকীয়তা আর ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতায় যে বাদ্যযন্ত্রটি আদি ও অকৃত্রিমভাবে রয়েছে একতারা। এই বাদ্যযন্ত্রটির বাদনভঙ্গী আর সুরের টানে খুঁজে পাওয়া যাবে মাটির ঘ্রাণ। এখনো বাংলাদেশের গ্রাম-গ্রামান্তর আর নগরে পাড়ি জমানো নগর বাউলদের কাছে শুনতে পাওয়া যায় এ বাদ্যযন্ত্রের বোল। আর মাত্র একটি তারের তৈরি এ বাদ্যযন্ত্রটি দিয়ে বাউল সাধকেরা সুরের যে বৈচিত্র্য ফুটিয়ে তোলেন তা সত্যিই বিস্ময়কর।[২][৩]

একতারার ইতিহাস[সম্পাদনা]

একতারা আবিষ্কারের ইতিহাস সুনির্দিষ্টভাবে জানা না গেলেও ধারণা করা হয় প্রায় ১০০০ বছর ধরে এর ব্যবহার হয়ে আসছে। আর এ যন্ত্রটি যে সম্পূর্ণ আমাদের দেশের আবহতেই তৈরি হয়েছে তা এর উপকরণের দিকে তাকালেই বুঝা যায়।[২] আবার অনেক বাউল শিল্পী মনে করেন, মরমি সাধক লালন শাহের কালেই একতারার জন্ম। তারা মনে করেন ফকির লালন শাহ তার মনের ভেতর উদয় হওয়া কথাগুলো ভক্তদের মধ্যে প্রচারের সময় কথাগুলো আরও মধুময় করে তোলার জন্য কথার ভাঁজে ভাঁজে তালের অনুভব থেকেই একতারার জন্ম। তবে একতারার জন্ম যেখানে বা যখনই হোক না কেন এই যন্ত্র নিয়ে আমাদের দেশে একটি জনপ্রিয় গানের শিরোনাম হচ্ছে একতারা তুই দেশের কথা বলরে এবার বল

একতারা তৈরির উপকরণ ও প্রক্রিয়া[সম্পাদনা]

একতারা তৈরির জন্য লাউ, কুমড়া, কদবেল, মোটা বাঁশ বা কাঠ, নারিকেলের খোল কিংবা পিতলের পাতলা আবরণ ব্যবহার করা হয়। তবে লক্ষ্য রাখতে হবে এটি যেন উপরে থেকে নিচে খোলা এবং বৃত্তাকার হয়। বৃত্তাকারের খোলা মুখের ব্যাস সাধারণত ৬ থেকে ৭ ইঞ্চি হয়। একতারার কাঁন দিয়ে তারটি টান বা ঢিলা করা হয়। দুই পাশে থাকা কঞ্চিতে চার আঙুলে ধরে এক আঙুল দিয়ে একটি তারে আঘাত করছ সুর তোলা হয়।[১]

বিশেষ সম্মাননা[সম্পাদনা]

ভাস্কর্য একতারা

বাউল সম্রাট লালন শাহের জন্মস্থান ঝিনাইদহের হরিণাকুণ্ডু শহরে স্থাপিত হয়েছে বিশ্বের সর্বোচ্চ বাদ্যযন্ত্রভিত্তিক ভাস্কর্য ‘একতারা’।[৪]

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]

  1. ১.০ ১.১ "বাউলের সাধন যন্ত্র"। ৫ মার্চ ২০১৬ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮ 
  2. ২.০ ২.১ একতারা
  3. ওয়াকিল আহমেদ। "একতারা"বাংলাপিডিয়া। ১৪ নভেম্বর ২০১৩ তারিখে মূল থেকে আর্কাইভ করা। সংগ্রহের তারিখ জুন ২৩, ২০১৪ 
  4. Ekattor Tv Live Stream (২০১৮-১০-২০)। "বাউল সম্রাট লালন সাঁইয়ের বসতভিটা ঝিনাইদহে তৈরি করা হয়েছে ২৬ ফুট উঁচু একটি একতারা ভাস্কর্য"