বিষয়বস্তুতে চলুন

উইকিশৈশব:প্রাণিজগৎ/পোকামাকড়

উইকিবই থেকে
একটি প্রজাপতি

পৃথিবীর অন্যান্য যেকোনো প্রাণীর চেয়ে পোকামাকড় বেশি। এই পৃথিবীতে ব্যক্তি প্রতি শত শত বা সম্ভবত হাজার হাজার পোকামাকড় রয়েছে। পোকামাকড় সাধারণত খুব ছোট হয় এবং সহজেই মেরে ফেলা যায়, কিন্তু যেহেতু তাদের সংখ্যা যথেষ্ট পরিমাণে বেশি রয়েছে, তাই তাদের সবকটিকে হত্যা করা প্রায় অসম্ভব।

পোকামাকড় সম্ভবত অন্যান্য প্রাণীর চেয়ে দীর্ঘকাল ধরে পৃথিবীতে রয়েছে। এদেরকে পোকামাকড় বা ইংরেজিতে ইনসেক্টস বলা হয় কারণ তারা একটি মাথা, একটি বক্ষ এবং একটি উদরে বিভক্ত। ইন-সেক্ট শব্দের আক্ষরিক অর্থ যা একাধিক ভাগে বিভক্ত। পোকামাকড়ের সাধারণত ছয়টি পা থাকে। এই কারণে মাকড়সা পোকামাকড় নয়, এটির রয়েছে আটটি বা চার জোড়া পা। পোকামাকড়ের একটি নিয়মিত কঙ্কালের পরিবর্তে একটি এক্সোস্কেলিটন বা বহির্কঙ্কাল থাকে, যার অর্থ এগুলি ধ্বংস করা সহজ। তবে এক্সোস্কেলিটন তাদের তুলনামূলকভাবে অক্ষত রাখতে সক্ষম।

পোকামাকড় সাধারণত নিজেদের বিশালাকৃতির কলোনি বা উপনিবেশে বাসা বানিয়ে থাকে, যদিও তাদের মধ্যে মাছির ক্ষেত্রে কলোনি গঠন দেখা যায় না। তাদের জীবনচক্র শুরু হয় ম্যাগট হিসাবে এবং পরে বিভিন্ন পর্যায় অতিক্রম করে তারা উড়তে শুরু করে। পোকামাকড় সাধারণত পাতা বা অন্য পোকামাকড় খায়।

মানব ইতিহাসের অধ্যায়ের শুরু থেকেই তারা পোকামাকড় দ্বারা বিরক্ত হয়েছে। কিছু পোকামাকড় পরজীবী হয়, যারা রোগ সৃষ্টি করে আবার কিছু মশার মতো মানুষের রক্ত খেয়ে পুষ্টি সংগ্রহ করে থাকে। এই কারণেই মানুষ পোকামাকড় ধ্বংস করার নতুন নতুন কৌশল তৈরি করে এসেছে।

কিছু পোকামাকড় আবার মানুষের জন্য উপকারী। মৌমাছি ফুলের পরাগ বিস্তার ঘটে পরাগমিলনে সহায়তা করে, যা কৃষিজ ফলন বৃদ্ধি করে।

উদাহরণ[সম্পাদনা]

  • আরশোলা
  • মাছি
  • পিঁপড়া
  • লেডিবাগ
  • প্রজাপতি