উইকিশৈশব:বিচিত্র ধর্মমত/ইহুদি ধর্ম

উইকিবই থেকে
পরিভ্রমণে চলুন অনুসন্ধানে চলুন


কত মানুষ ইহুদি ধর্ম অনুসরণ করেন?[সম্পাদনা]

প্রায় দেড় কোটি (১৫ মিলিয়ন) মানুষ ইহুদি ধর্ম অনুসরণ করেন। এই ধর্মের অনুসারীদের বলা হয় "ইহুদি"।

কোথায় ইহুদি ধর্মের চর্চা হয়?[সম্পাদনা]

ইহুদি ধর্ম বিশ্বের বেশিরভাগ অঞ্চলে চর্চা করা হয়। বিশেষ করে ইসরায়েল এবং মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র সবচেয়ে বেশি সংখ্যায় ইহুদি ধর্মাবলম্বী মানুষ রয়েছেন। (১৩ থেকে ১৪ মিলিয়ন)। যেখানে ফ্রান্সে বৃহত্তম ইউরোপীয় ইহুদি জনসংখ্যা আছে, সেখানে যুক্তরাজ্যেও একটি ছোট কিন্তু বিশিষ্ট ইহুদি জনসংখ্যা রয়েছে। পৃথিবীতে মাত্র কয়েকটি দেশই আছে যেখানে ইহুদি নেই, উদাহরণস্বরূপ, সৌদি আরব এবং উত্তর কোরিয়া।

ইহুদি ধর্মের প্রধান বিশ্বাসগুলি কি কি?[সম্পাদনা]

  1. তাওরাত, সর্বদা একটি জীবন্ত আইন। লিখিত তাওরাতকে মৌখিক তাওরাতের আলোকে বোঝা যায়।
  2. ঈশ্বর, একটি একতা
  3. ঈশ্বর বলেছেন জনগণ (ইসরায়েলি ইহুদি) একটি পরিবারের সদস্য, একটি যৌথ ব্যক্তিত্ব, একটি বিশ্বাসের সম্প্রদায়।
  4. ভূমি (আজ ইরেৎজ ইসরাইল নামে পরিচিত)

ইহুদি ধর্ম কোন গ্রন্থকে পবিত্র মনে করে?[সম্পাদনা]

তাওরাত হল ইহুদি বইগুলির মধ্যে সবচেয়ে পবিত্র। একে পেন্টাটিউক বা মূসার পাঁচটি বইও বলা হয়। এটি তানাখের অংশ, যেটি হল হিব্রু বাইবেল (খ্রিস্টান সম্প্রদায় একে "পুরাতন নিয়ম" বা ওল্ড টেস্টামেন্ট বলেন)। মিশনা এবং তালমুদ ইহুদি ধর্মে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ, যদিও "পবিত্র" শব্দটি সত্যিই এই বইগুলির ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়।

ইহুদি ধর্মের কিছু প্রধান ছুটির দিন এবং অনুশীলন কি কি??[সম্পাদনা]

হানুক্কাহ (চানুক্কা) হল ইহুদি ছুটির একটি উৎসব। আরেকটি হল পাসোভার (পেসাচ)।

ইহুদি ধর্মের ইতিহাস কি?[সম্পাদনা]

ইহুদি ধর্মের পবিত্র লেখাগুলিতে ১৬৪ খ্রিস্টপূর্বাব্দ পর্যন্ত ইহুদি ধর্মের নিজস্ব গল্প রয়েছে, যেগুলি হিব্রু বাইবেলে (ওল্ড টেস্টামেন্ট) বলা হয়েছে। এখানে বর্ণনা করা হয়েছে যে কিভাবে ঈশ্বর ইহুদি ধর্মের মানুষদের বিশ্বের সামনে উদাহরণ হিসেবে বেছে নিয়েছিলেন এবং কিভাবে ঈশ্বর এবং তার নির্বাচিত লোকেরা নিজেদের মধ্যে সম্পর্ক তৈরি করেছিলেন। অনেক সময়েই এই সম্পর্কটি ঘাত প্রতিঘাতের মধ্যে গেছে। এই গল্পের আকর্ষণীয় জিনিসগুলির মধ্যে একটি হল ঈশ্বর তার অনুগামীদের সাথে নিজেও পরিবর্তন এবং উন্নয়নের মধ্যে দিয়ে গেছেন।

ইহুদি ধর্ম পালন করেছেন এমন কিছু বিখ্যাত ব্যক্তি কারা?[সম্পাদনা]

শৌল, ইশাইয়া, ইজেকিয়েল, এলিশা, আলবার্ট আইনস্টাইন এবং উডি অ্যালেনের মতো ব্যক্তিত্ব এই ধর্ম পালন করেছেন।

ইহুদি ধর্ম থেকে একটি গল্প কি?[সম্পাদনা]

রাব্বি শমুয়েল "শ্মেলকে" হোরোভিটজ (১৭২৬ - ১৭৭৮), যিনি "নিকলসবার্গের রাব্বি শ্মেলকে" নামে পরিচিত ছিলেন, একজন অসাধারণ চ্যাসিডীয় ইহুদি শিক্ষক ছিলেন। তিনি বাইবেলের নবী শমুয়েল হানাভিকে নিজের পূর্বপুরুষ বলে দাবি করেছিলেন, এবং বলেছিলেন যে নবী তার নিজের আত্মা তাঁকে দিয়ে গেছেন। তিনি সবসময় একজন চ্যসিড ছিলেন না; প্রকৃতপক্ষে, তিনি মূলত চ্যাসিডীয়দের প্রথম দিককার বিরোধীদের মধ্যে ছিলেন। এরপরে তার সঙ্গে মেজরিচের বিখ্যাত ম্যাগিডের দেখা হয়। পরবর্তীতে রাব্বি শ্মেলকে মোরাভিয়ার নিকোলসবার্গ (মিকুলভ) এর রাব্বি হন। তিনি ডিভরে শ্মুয়েল, ইমরে শ্মুয়েল এবং শেমেন হাটভ তাওরাতের লেখক।

যখন তিনি নিকলসবার্গে রাব্বি হিসেবে নিযুক্ত হন, সম্প্রদায়ের নেতারা তাঁকে জানান যে তাঁদের একটি বিশেষ রীতি আছে, সেটি হল: প্রত্যেক নতুন রাব্বি সম্প্রদায়ের ইতিহাসে একটি নতুন নিয়ম বা প্রথা যোগ করবেন বলে আশা করা হয়। রাব্বি শ্মেলকে শুধু হাসলেন কিন্তু কিছু বললেন না। বেশ কিছুটা সময় কেটে গেল কিন্তু নতুন রাব্বি নিয়ম-বইতে কিছু অবদান রাখলেন না, এই নিয়ে সমাজের কর্মকর্তারা তাঁকে চাপ দিতে থাকলেন; কিন্তু রাব্বি শ্মেলকে দেরি করতে থাকেন এবং নানা ধরনের অজুহাত দেখাতে থাকেন। অবশেষে তার সচিব একটি উদ্যোগ নিলেন। তিনি রাব্বির সামনে বইটি রাখলেন, তার পাতা খুলে দিলেন এবং পাশে একটি কালির দোয়াত ও একটি কলম সুন্দরভাবে রাখলেন।

রাব্বি শ্মেলকে বসলেন, কলমটি তুলে নিলেন এবং দশটি আদেশ (টেন কম্যাণ্ডমেন্টস) লিখলেন।

আমরা তাদের জানি, কিন্তু সেগুলি সবসময় আমাদের জন্য নতুন।

তথ্যসূত্র[সম্পাদনা]