কর্মী বিনিময় কর্মসূচী/সামছউদ্দীন নাহার পল্লীতথ্য কেন্দ্র

উইকিবই থেকে
পরিভ্রমণে ঝাঁপ দিন অনুসন্ধানে ঝাঁপ দিন

শামসুদ্দিন নাহার ট্রাস্ট পল্লীতথ্য কেন্দ্র বৈটপুর, বাগেরহাট পরিদর্শনের তারিখ: ০৮ নভেম্বর থেকে ১০ নভেম্বর ২০০৯

যেসকল তথ্যকর্মী পরিদর্শন করেছেন আবু জুবায়ের দিগন্তের ডাক পল্লীতথ্য কেন্দ্র মাইজদি, নোয়াখালী যিনি তত্ত্বাবধান করেছেন তাছফিয়া জাহান দিপা সামছউদ্দীন নাহার পল্লীতথ্য কেন্দ্র বৈটপুর, বাগেরহাট

১. টেলিসেন্টার পরিচিতি

K. টেলিসেন্টারের শুরুর তারিখ: ২৫ জুলাই ২০০৯ ইং L. প্রাথমিকভাবে যারা শুরু করেছিল এস এন টি এর ট্রাষ্ট ও টিডিসি রাজশাহীর চেয়ারপার্সন সবিতা ইয়াছমিন, ড. তারেক এর প্রচেষ্টায় এই কেন্দ্রের শুরু। M. এই স্থানে টেলিসেন্টার নির্বাচনের কারন পূর্বেই এই ন্থানে অন্যান্য কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছিল। পরবর্তীতে ডি.নেট টিম পরিদর্শন করার পর এই স্থানকে তথ্য প্রদানের মত উপযুক্ত স্থান হিসাবে নির্বাচন করেন কারন জনসমাগম বেশি ও মূল সড়কের অতি নিকটে অবস্থিত ও গ্রামের মানুষের কাছের স্থান। এস্থানে প্রশিক্ষণ ও তথ্যের চাহিদা রয়েছে। N. তথ্যকেন্দ্রের সেবার তালিকা সেবার নাম কাদের দেয়া হয় কখন দেয়া হয় কোনো ফি নেয়া হয় কি? হলে কিভাবে তথ্যসেবা সর্বসাধারনের জন্য অফিস চলাকালীন সময়ে সপ্তাহে প্রতিদিন মৌখিক বিনামূল্যে, প্রিন্ট প্রতি পৃষ্ঠা ৫ টাকা পত্রিকা পড়া সর্বসাধারনের জন্য অফিস চলাকালীন সময়ে সপ্তাহে প্রতিদিন বিনামূল্যে বই পড়া ছাত্র ছাত্রীদের জন্য অফিস চলাকালীন সময়ে সপ্তাহে প্রতিদিন বিনামূল্যে কম্পোজ এলাকার সকল জনসাধারনকে অফিস চলাকালীন সময়ে সপ্তাহে প্রতিদিন ১৫ থেকে ২০ টাকা ছবি তোলা এলাকার সকল জনসাধারনকে অফিস চলাকালীন সময়ে সপ্তাহে প্রতিদিন ২ কপি ১৬ টাকা

O. তথ্যকেন্দ্রে ব্যবহৃত যন্ত্রপাতি

যন্ত্রপাতির নাম সংখ্যা ডেস্কটপ ১১ টি ল্যাপটপ ২ টি ডিজিটাল ক্যামেরা ২ টি প্রিন্টার ২টি স্পিকার ২ টি হেডফোন ২ টি মডেম ২ টি

পরিদর্শনকারীর মতামত আবু জুবায়ের: উপরোক্ত সেবা সমূহের ক্ষেত্রে উক্ত কেন্দ্রটি খুব ভাল ভূমিকা রাখছে। বিশেষ করে স্বাস্থ্য ক্যাম্প ও ক্যাম্পে বিনামূল্যে ওষধ প্রদান এবং বই পড়ার প্রতি এলাকাবাসীর আগ্রহ লক্ষ্যনীয়।


P. তথ্যকেন্দ্রের ইন্টারনেট সংযোগ ইন্টারনেট সংযোগ আছে এবং তা গ্রামীন ফোন জিপি মোডেম। Q. তথ্যকেন্দ্রে ব্যবহৃত অফলাইন তথ্য ও সিডি বিভিন্ন শিক্ষামূলক সি ডি ১৫০টি, বই ১৫০০টি, নিউজপেপার, লিফলেট, বুলেটিন, কারেন্ট এ্যাফেয়ার্স।

২. টেলিসেন্টার কর্মী পরিচিতি K. তথ্যকেন্দ্রে কর্মরত কর্মীদের তালিকা নাম পদবী কি কাজ করছে? সুব্রত কুমার মুখার্জী কো - অর্ডিনেটর পরিকল্পনা, রিপোর্টিং, ডকুমেন্টশান , হার্ডওয়ার সমস্যা সমাধান তাসপিয়া জাহান দিপা সেন্টার ম্যানেজার প্রশিক্ষণ, রিপোর্টিং, ডকুমেন্টশান, তথ্য সেবা প্রদান, আনুষঙ্গিক সেবা প্রদান। খাদিজা আক্তার তথ্যকর্মী মাঠ পর্যায়ে যেয়ে সাধারন মানুষের সমস্য নিয়ে আলোচনা করেন, কম্পোজ, এবং ফিল্ডে ছবি তোলা এবং অন্যান্য। নুর আলম প্রশিক্ষক প্রশিক্ষন দেয়া, কম্পোজ, ছবি তোলা , ইমেইল করা। মাহিদুল ইসলাম মোটিভেটর মোটিভেশন, টেনিং এর আয়োজন করা, যুব উন্নয়ন মৎস্য অধিদপ্তর এর সাথে দেখা করা আলোচনা করা।

L. কর্মীদের নির্বাচন প্রক্রিয়া সুব্রত কুমার মুখাজী: প্রথমে কর্মী নির্বাচনের জন্য নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয় স্থানীয় বিভিন্ন পত্রিকায় ও জনবহুল স্থানে, এরপর আগ্রহীদের কাছ থেকে আবেদনের ভিত্তিতে ইন্টাভিউর মাধ্যমে এখানে নির্বাচিত হলেন। এই প্রতিষ্ঠানে যোগ দেওয়ার পূর্বে তাঁর নিজের একটি প্রতিষ্ঠান ছিল। M. তথ্যকর্মীর প্রতিদিনের কাজ সময় কাজ সকালে ১. মুভমেন্ট রেজিষ্টারে সই করা ২. মেইল চেক করা , উত্তর দেওয়া ও নতুন মেইল করা দুপুরে ১. মাঠ পর্যায়ে বিভিন্ন সমস্যার সমাধান খোজা ২. রিপোর্টিং ও ডকুমেন্টশন করা বিকেলে ১. সকল কর্মীদের সাথে বসে আজকের কাজের অগ্রগতি ও সমস্যা সম্পর্কে জানা ও পরামর্শ প্রদান করা সন্ধায় ১. আজকের কাজের অগ্রগতি বিশশ্লেষন করে আগামীদিনের কাজ নির্ধারন করা, যদি কোন যন্ত্রের সমস্যা থাকে তা সমাধান করা।

N. সামাজিক প্রতিকূলতা: প্রথম প্রথম সামাজিক ভাবে বিশ্বাস করাতে খুব কষ্ট হতো এখন আর কোন কষ্ট হয় না। তাই বর্তমানে তেমন কোন সমস্যার মুখোমুখি হতে হয় না।

O. তথ্যকর্মীর ওয়েবসাইট ব্যবহার ওয়েবসাইটের তালিকা ব্যবহারের কারন http://www.blri.gov.bd বিভিন্ন পশু পাখি সম্মধে জানার জন্য। www.agrobanglagroup.org বাংলাদেশের কৃষি, পশু-পাখি পালন ও রোগ প্রতিরোধে করনীয় সম্মধে জানার জন্য। http://banglalibrary.evergreenbangla.com বাংলা গল্প, কবিতা,প্রবন্ধ ইত্যাদি বিষয় পড়ার জন্য। http://www.boi-mela.com বই মেলায় যে সকল বই আছে তা পড়ার জন্য। http://www.jeebika.com বাংলায় চাকরীর খবর জানার জন্য। http://www.talkenglish.com ইংরেজী শেখার জন্য। http://www.educationboard.gov.bd বিভিন্ন পরীক্ষার রেজাল্ট জানার জন্য। http://health.evergreenbangla.com স্বাস্থ্য বিষয়ে জানার জন্য। http://www.prothom-alojobs.com চাকরীর খবর জানার জন্য। http://www.bdnews24.com বিভিন্ন দৈনিক পত্রিকার খবর পড়ার জন্য। http://www.ragatracks.com বিভিন্ন গান শোনা এবং ডাউনলোড করার জন্য www.jeebika.com.bd বেকার যুবকদের চাকরী খোজার জন্য। পরিদর্শনকারীর মতামত আবু জুবায়ের: দুইটি মডেম থাকার ফলে এখানকার কর্মীরা সকলেই পর্যাপ্ত পরিমান সময় ইন্টারনেট ব্রাউজ করে থাকেন।

P. তথ্যকর্মীর ব্লগ কিংবা সামাজিক ওয়েবসাইটে অবস্থান তিনি ফেসবুক, টেলিসেন্টার বিডি, হাই ফাইভ,পল্লীতথ্য, ইহাহু, স্কাইপ, বিবিসি জানালা, গ্রামীন তথ্য কেন্দ্র ব্লগ এর সদস্য।

Q. উল্ল্যেখযোগ্য ঘটনা যা তথ্যকর্মীকে কাজ করতে উৎসাহিত করে সুব্রত কুমার মুখাজী: তার বর্তমান পেশা ও পূর্বের পেশা একই , তবে এখানে এসে একটি বাড়তি বিষয় পেয়েছেন, যা হলো ইন্টারনেট। যখন মানুষকে তিনি ইন্টারনেট এর মাধ্যমে সঠিক তথ্যটি দেন তখন তারা যে আনন্দ প্রকাশ করে তা তাকে এ কাজে উৎসাহিত করে।

R. তথ্যকর্মীর ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সুব্রত কুমার মুখাজী: বাগেরহাট জেলার সকল গ্রামে একটি করে তথ্যকেন্দ্র স্থাপন করতে চান। পরিদর্শনকারীর মতামত আবু জুবায়ের: বর্তমানে এই সস্থার স্বাস্থ্য প্রকল্পের আওতায় ২৯ টি গ্রামে তাদের কার্যক্রম রয়েছে। এক্ষেত্রে তথ্য কেন্দ্র স্থাপন করতে গেলে বাড়তি সুবিধা পাওয়া যাবে।

S. তথ্যকর্মীর ব্যক্তিগত জীবন সুব্রত কুমার মুখাজী: শিক্ষাগত যোগ্যতা ডিপ্লোমা ইন কম্পিউটার। ব্যক্তিগত জীবনে বিবাহিত এবং এক সন্তানের জনক। তিন ভাই এর মধ্যে মেজ।

৩. টেলিসেন্টার পরিচালিত এলাকা সম্পর্কে

K. তথ্যকেন্দ্র পরিচালিত এলাকার ভৌগলিক অবস্থান বাগেরহাট সদর উপজেলার ১ নং ইউনিয়ন । এর পশ্চিমে রয়েছে খানজাহান আলী পিরসাহেবের মাজার এবং ঐতিহ্যবাহী ষাটগুম্বজ মসজিদ, পূর্বে বাগেরহাট শিল্প নগরী (বিসিক), দক্ষিনে দিকে সুন্দরবন এলাকা, উত্তরে বাগেরহাট পৌরসভা এবং প্রধান শহর। জনসংখ্যা প্রায় ১০,০০০।

L. তথ্যকেন্দ্র পরিচালিত এলাকার জনগণের পেশা এলাকার জনগনের প্রধান প্রধান পেশা কৃষি, মাছ চাষ, চাকুরি ও ব্যবসা।

M. তথ্যকেন্দ্র পরিচালিত এলাকার অবকাঠামো সব কিছু এলাকায় ভাল ভাবে রয়েছে।

N. তথ্যকেন্দ্র পরিচালিত এলাকার সরকারী বেসরকারী প্রতিষ্ঠান সরকারী প্রতিষ্ঠানঃ ৭ টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, শিশু একাডেমী, ডাকঘর। বেসরকারী প্রতিষ্ঠানঃ পুবালী ব্যাংক, মাধ্যমিক স্কুল, মাদ্রাসা, ব্র্যাক এর একটি শাখা অফিস,উদ্দিপন, বদর সামসউদ্দিন প্রি ক্যাডেট ।

O. তথ্যকেন্দ্র পরিচালিত এলাকার গুরুত্বপূর্ণ কিংবা উল্ল্যেখযোগ্য স্থাপনা বা ঘটনা এ এলাকায় গুরুতপুর্ণ স্থাপনার মধ্যে রয়েছে ঐতিহ্যবাহী খানজাহান আলী পীরসাহেবের মাজার, ষাটগম্বুজ মসজিদ, নয় গম্বুজ মসজিদ, এক গুম্বজ মসজিদ, অযোধ্যার মঠ, সুন্দরবন।




৪. টেলিসেন্টারের মাধ্যমে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করার কৌশল

K. এলাকার জনগণকে তথ্যকেন্দ্রের সেবার সাথে সম্পৃক্ত করার জন্য উদ্বুদ্ধকরণ কর্মসূচী উদ্বুদ্ধকরণ কর্মসূচীর নাম বিবরণ স্বাস্থ্য ক্যাম্প আমরা প্রতি বৃহস্পতিবার টেলিসেন্টারে একজন এফ.সি.পি.এস ডাক্তার আনি যে ফ্রি রুগি দেখে থাকে। ভিডিও প্রদর্শন আমরা প্রায়ই বাজার, স্কুল, মন্দির এসব জনবহুল এলাকায় শিক্ষামুলক ভিডিও শোর আয়োজন করি এবং জনগন আরো বেশি টেলিসেন্টারের সাথে সম্পৃক্ত হয়। উঠান বৈঠক আমরা এলাকার জনসাধারনকে নিয়ে উঠান বৈঠক এর আয়োজন করি এবং এলাকার সকলকে আমাদের তথ্য সম্পর্কে অবহিত করি ও তাৎক্ষনিক সকলের সমস্যা সমাধান করার চেষ্টা করি। লিফলেট আমরা বিভিন্ন স্কুল, কলেজে লিফলেট প্রদান করি। এছাড়াও বিভিন্ন শিক্ষামূরক প্রতিষ্ঠানে ও লিফলেট প্রদান করি। মাইকিং আমরা আমাদের কার্যক্রম সম্পর্কে জনসাধানরকে জানানোর জন্য মাইকিং করে থাকি।

L. তথ্যকেন্দ্র পরিচালিত এলাকার এনজিও, সরকারী প্রতিষ্ঠান, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এর সাথে তথ্যকেন্দ্রের সম্পৃক্ততা বিভিন্ন পরীক্ষার প্রশ্নপত্র তৈরি করা, এনজিও কর্মীরা বিভিন্ন ওয়েব সাইট ব্যবহার করে, শিক্ষা প্রতিষ্টান সমুহ বিভিন্ন সময় তাদের সরকারী ফরম সেন্টারের মাধ্যমে সংগ্রহ করে।

M. স্থানীয় সরকার এবং অন্যান্য সরকারী প্রতিষ্ঠান এর সাথে তথ্যকেন্দ্রের সম্পৃক্ততা যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর তাদের কাছ থেকে বিভিন্ন সময় তথ্য নেয় এবং তারাও তথ্য সংগ্রহ করে। এছাড়াও যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর বিভিন্ন প্রশিক্ষণের আয়োজন করলে সেখানে ছাত্রছাত্রী যোগার করে দেন। ইউনিয়ন পরিষদ তাদের সাথে তথ্য আদান প্রদান করে থাকে।

N. এলাকার ক্ষুদ্র ব্যসায়ীদের সাথে তথ্যকেন্দ্রের সম্পৃক্ততা এলাকার ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা তাদের কাছ থেকে সেবা গ্রহন করে। যেমনঃ কোন ভাবে মাছ চাষ করলে বেশি লাভ হবে, সবজি চাষ, মুরগীর ফার্ম করা।

O. এলাকার নারীদের সাথে তথ্যকেন্দ্রের সম্পৃক্ততা তারা কম্পিউটার প্রশিক্ষণ, ছবি তোলা, স্বাস্থ্য সেবা এবং বাড়িতে সবজি চাষ করে কিভাবে বেশি টাকা আয় করা যায় সে বিষয়ে সেবা গ্রহন করে। পরিদর্শনকারীর মতামত আবু জুবায়ের: শিক্ষিতজন সহ এলাকাবাসীরা দেশবিদেশে অবস্থিত তাদের আত্নীয়ের সাথে স্কাইপ বা ম্যাসেঞ্জারের মাধ্যমে চ্যাট করতে পারে।

P. এলাকার শিশু ও কিশোরদের সাথে তথ্যকেন্দ্রের সম্পৃক্ততা এলাকার শিশু কিশোররা এখানে এসে কম্পিউটারে গেম খেলে, কার্টুন ছবি দেখে, ও উদয়ন বদর সামস স্কুলে গিয়ে বিভিন্ন ধরনের শিক্ষামূলক ভিডিও প্রদর্শনকরা হয়।

৫. টেলিসেন্টার ব্যবস্থাপনা

K. দৈনিক কর্মসময়: সকাল নয়টা থেকে সন্ধা ছয়টা পর্যন্ত খোলা থাকে।

পরিদর্শনকারীর মতামত আবু জুবায়ের: এছাড়াও সেবাগ্রহিতাদের চাহিদা অনুযায়ী এর আগে পরেও কেন্দ্রের ব্যবস্থাপককে কেন্দ্রে অবস্থান করতে দেখা গেছে, কেন্দ্র ব্যবস্থাপকের বাড়ী কেন্দ্র সংলগ্ন হওয়ায় অনেক সময় সেবা গ্রহিতারা বন্ধের দিনে তাকে বাড়ী থেকে ডেকে নিয়ে আসেন।

L. কর্মীর দৈনিক কাজের তালিকা একজন টেলিসেন্টার কর্মী প্রতিদিন অফিসে এসে অফিসের প্রয়োজনীয় কাজ করে সে মাঠ পর্যায়ে চলে যায় এবং তাদের প্রয়োজনানুসারে সেবা প্রদান করে থাকে।

M. তথ্যকেন্দ্র পরিদর্শনকারী কিংবা সেবা গ্রহীতাদের তালিকা সংরক্ষণ সেবা গ্রহীতাদের তালিকা সেবা গ্রহনকারী রেজিস্টারে লিখে রাখা হয়। ছবিও রাখা হয় না।

N. তথ্যকেন্দ্রের নতুন কাজের সিদ্ধান্ত গ্রহণ প্রক্রিয়া এলাকার চাহিদা গুলো একত্র করে অফিসের অন্যন্য কর্মকর্তাদের সাথে আলাপ আলোচনা করে নতুন নতুন কাজের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

O. তথ্যকেন্দ্রের আর্থিক হিসাব সংরক্ষণ ক্যাশ বুক ,লেজার বুক এবং কম্পিউটারে একসেল প্রোগ্রামে রাখা হয়।

P. তথ্যকেন্দ্রের কর্মীদের মূল্যায়ন ছয় মাস পরপর একটি চেকলিস্ট এর মাধ্যমে কর্মীদের মূল্যায়ন করা হয়।

Q. তথ্যকেন্দ্রের সাজসজ্জা টেলিসেন্টারটি ছয়টি রুম। একটি ওয়েটিং রুম ও ক্যাম্পের জন্য, এছাড়াও যে কোন সভা হলে এ রুমে আয়েজন করা হয়। এর সাথে আর একটি রুম রয়েছে যেখানে আনুষঙ্গিক কাজ করা হয় এবং ক্যাম্পের সময় রোগী দেখা হয়। একটি সেবাপ্রদান কারী রুম। এ রুমে কেন্দ্র ব্যবস্থাপক বসেন, রিপোর্ট ও ডকুমেন্টেশান এর কাজ করে থাকেন। এ রুমের অন্য অংশে হিসাব ব্যবস্থাপনার কাজও করা হয়। এখানে ছবিতোলা ডি ভি ফরম পূরন মেইল ও আনুষঙ্গিক সেবা দান করা হয়। একটি রুমে লাইব্রেরি ও কম্পিউটার প্রশিক্ষণের কাজ করা হয়। পাশের অন্য রুমে কো-অর্ডিনেটর বসেন। এছাড়াও কেন্দ্রের বাইরে পত্রিকা পড়ার আলাদা ব্যবস্থা রয়েছে এবং আলাদা গোসলখানা রয়েছে। পরিদর্শনকারীর মতামত আবু জুবায়ের: কেন্দ্রের পরিবেশ সুন্দর ও সাজানো গোছানো।

৬. টেলিসেন্টারের সেবা ও কার্যক্রম K. তথ্যকেন্দ্রের সেবাগুলো গ্রহণ করে কিভাবে জনগণ লাভবান হয় সেবাসমূহ সেবা গ্রহণকারীদের লাভ কম্পিউটার প্রশিক্ষণ তারা বিভিন্ন কর্মক্ষেত্রে কাজে লাগাতে পারে। ছবি তোলা অন্যান্য স্থানের থেকে কম মূল্যে তারা পেয়ে থাকে। কার্টুন ছবি দেখা কোন প্রকার ফি প্রদান করা লাগে না। ইন্টারনেট ভিত্তিক সেবা অন্যান্য স্থানের থেকে কম মূল্যে তারা পেয়ে থাকে। কৃষি ভিত্তিক সেবা অন্যান্য স্থানের থেকে কম মূল্যে তারা পেয়ে থাকে। মাছ চাষ সংক্রান্ত সেবা অন্যান্য স্থানের থেকে কম মূল্যে তারা পেয়ে থাকে। আইন পরামর্শ অন্যান্য স্থানের থেকে কম মূল্যে তারা পেয়ে থাকে। স্বাস্থ্য ক্যাম্প দরিদ্রদের জন্য এ সেবা হওয়াতে এলাকার হত-দরিদ্র জনগন এ সেবার মাধ্যমে সুচিকিৎসার পাশাপাশি অর্থের সাশ্রয় হচ্ছে

L. তথ্যকেন্দ্র পরিচালিত এলাকার নতুন কোনো তথ্য বা সেবার চাহিদা বিভিন্ন ধরনের কর্মমূখী শিক্ষা যেমন সেলাই, ব্লক বাটিক ইত্যদি।



৭. টেলিসেন্টারের প্রতিবন্ধকতাসমূহ ও উত্তরণের উপায়

K. তথ্যকেন্দ্রের কোনো কারিগরী সমস্যা কেন্দ্রের কো-অর্ডিনেটর এ বিষয়ে পর্যাপ্ত জ্ঞান রয়েছে যার ফলে নিজেদের কেন্দ্রের সমস্যা তাৎক্ষনিক সমাধানের পাশাপাশি আশপাশের অন্যান্য কেন্দ্রের হার্ডওয়ার সমস্যা সমাধান করে থাকেন।

L. তথ্যকেন্দ্র কর্মীদের দক্ষতা সংক্রান্ত প্রতিবন্ধকতা তাদেরকে আরো হাতে কলমে ভাল প্রশিক্ষণ দিতে পারলে প্রতিবন্ধকতা গুলো কাটিয়ে ওঠা সম্ভব।

M. এসকল প্রতিবন্ধকতা দূর করতে যেসকল উদ্যোগ নেয়া যেতে পারে ৩ মাস বা ৬ মাস পরপর ভাল প্রশিক্ষণ এর ব্যবস্থা করা।

৮. টেলিসেন্টারের সামাজিক গ্রহণযোগ্যতা এবং আর্থিক আয়-ব্যয়

K. তথ্যকেন্দ্রের সেবা গ্রহণকারী (মাসে): প্রতিমাসে ৮০০ জন সেবা পেয়ে থাকে। L. তথ্যকেন্দ্রের অবস্থান সম্পর্কে এলাকার যতভাগ জনগণ জানে: টেলিসেন্টারের অবস্থান শতকরা ৯০ ভাগ লোক জানে M. এলাকার জনগণ যেভাবে এ কার্যক্রমে সহায়তা করছে এলাকার জনগন তথ্যকেন্দ্রের বিবিন্ন কার্যক্রমে স্বতস্ফূর্ত অংশগ্রহন ও স্বেচ্ছাশ্রমের মাধ্যমে সহযোগিতা করে থাকে।

N. তথ্যকেন্দ্র স্থাপনে আনুমানিক খরচ

খরচের খাত পরিমান (টাকা) ল্যাপটপ ১ টি ৪৭,০০০ ডেক্সটপ কম্পিউটার ১৪ ২,৫০,০০০ ডিজিটাল ক্যামেরা ১২,০০০ প্রিন্টার লেজার ১০,০০০ প্রিন্টার (ছবির জন্য ফটো প্রিন্টার) ৬,৫০০ ইন্টারনেট সংযোগের মোডেম ৮,০০০ ইউপিএস ২ টি ৫,৬০০ স্ক্যানার ৩,০০০ ওয়েব ক্যামেরা ১,৮০০ হেডফোন ৫০০ মাইক ২,৫০০ আসবাবপত্র ৫০,০০০

পরিদর্শনকারীর মতামত আবু জুবায়ের: উক্ত কেন্দ্রে পর্যাপ্ত পরিমানে আসবাবপত্র ও যন্ত্রপাতি রয়েছে যা দেশের অন্য অনেক তথ্যকেন্দ্র থেকে উল্লেখযোগ্য পরিমাণে বেশি ।

O. প্রাথমিক স্থাপনের খরচ কিভাবে জোগাড় হয়েছিল ডিনেট এবং সংস্থার নিজস্ব অর্থায়ন। পরিদর্শনকারীর মতামত আবু জুবায়ের: সংস্থার নিজস্ব অর্থায়ন এখানে উল্লেখযোগ্য, সামসউদ্দিন নাহার ট্রাষ্ট এর আটজন ট্রাষ্টি প্রত্যেকে বছরে এক লক্ষ্য টাকা করে প্রদান করেন।

P. তথ্যকেন্দ্র স্থাপনের জন্য কোনো আর্থিক সহায়তা বা ঋণ গ্রহণ: না। Q. তথ্যকেন্দ্রের মাসে (গড়ে) খরচ

খরচের খাত পরিমান (টাকা) তথ্য কর্মীদের বেতন ৮,০০০ বিদ্যুৎ বিল ১,২০০ ছবি সংক্রান্ত ৫০০ ইন্টারনেট ২,০০০ প্রচার ১,৫০০ যাতায়ত ২,০০০ মেরামত ১,০০০ আপ্যায়ন ১,৫০০ আনুষঙ্গিক ২,০০০


পরিদর্শনকারীর মতামত আবু জুবায়ের: নিজস্ব সোলার প্যানেল থাকাতে বিদ্যুৎ খরচ তুলনামূলক কম হয়।

R. তথ্যকেন্দ্রের আয়ের খাত

আয়ের খাত আয়ের পরিমান (এক মাসে) কম্পিউটার প্রশিক্ষণ ১,০০০ ছবি তোলা ২,০০০ তথ্য ও আনুষঙ্গিক সেবা প্রদান ২,০০০ ক্যাম্প ১,০০০


৯. সাফল্যের কাহিনী তথ্য এবং জীবন কাহিনী আলোচনা করা

উপকারভোগীর নামঃ শিল্পী আক্তার শিল্পী আক্তার এর বয়স ১৭ বছর। তার বিয়ে হয়েছ্ ১ বছর হয়। স্বামী আর্মিতে চাকুরী করে এবং আর্থিক অবস্থান মোটামুটি ভাল। বিয়ের পর তার স্বামী তাকে পড়ার জন্য সুযোগ দিতে চায় । কিন্তু শিল্পী এস.এস.সি পাশ করেছে ১ বছর আগে । এত দিনে সে পড়ার জন্য কোন চেষ্টা করেনি। এলাকার তথ্যকর্মী খাদিজা আক্তার তার বাড়িতে যাতায়াত করে। একদিন সে তার বিষয়টা তথ্যকর্মীকে বলে এবং জানতে চায় সে এখন কিভাবে পড়া শুনা চালিয়ে যেতে পারে। তথ্য কর্মী তাকে জানায় উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সে এ কাজটি করতে পারে। তথ্য কর্মী তাকে এ বিষয়ে সকল তথ্য সরবরাহ করে। সে জানত না কোথায় উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে কিভাবে যোগাযোগ করবে। শিল্পী তার স্বামীকে বিষয়টি জানায় । তার স্বামীর সম্মতিতে সে পড়াশুনা করার সিদ্ধান্ত নেয়। কিছু দিন পর তথ্য কর্মী যখন তাদের বাড়ীতে আবার যায় তখন সে জানতে চায় ভর্তির তারিখ কখন। তথ্য কর্মী বলে আপনি এখন খোজ না নিয়ে বসে আছেন ,ভর্তি শুরু হয়েছে অনেক আগে। আমি আপনাকে জানিয়ে দিচ্ছি আর কত দিন আছে নাকি শেষ হয়ে গেছে । তথ্য কর্মী তাকে জানায় আর মাত্র ১ দিন সময় আছে ভর্তির। জানতে পেরে শিল্পী পরের দিন সেখানে যায় এবং ভর্তি হয়। সে তখন তথ্যকর্মীকে বলে আপনি না জানালে আমার ১টা বছর আবারও অপেক্ষা করতে হত। দেখা যেত তখন পড়ার আর মন থাকত না। আপনার কাছে জানতে পেরে আমার অনেক বড় উপকার হয়েছে যা টাকা দিয়ে শেষ করা যাবে না। এখন শিল্পী এইস.এস.সি ফাইনাল পরীক্ষা দিবে।